সন্তান লাভের আশায় সাধুবাবার সামনে যা করলেন এই মহিলা!

বিয়েটা অনেকদিনই হয়েছিল। কিন্তু, সংসার আলো করে কোনও সন্তান আসছিল না। বেশ চিন্তায় ছিলেন সতীশ (নাম পরিবর্তিত)। বন্ধুবান্ধবদের কাছে শোনেন, ভর্তকনগরেই রয়েছে যোগেশ কুপেকার নামে এক যোগী। যার কাছে একবার গেলেই নাকি সব মুশকিল আসান হয়ে যায়। স্ত্রীর আপত্তি সত্ত্বেও সন্তান হওয়ার আশায় সেই সুযোগ ছাড়তে চাননি সতীশ। যাব না যাব না করে একপ্রকার যেতে বাধ্য হন তাঁর স্ত্রীও। এরপরই শুরু হয় ভণ্ডবাবার কীর্তি।

তবে, প্রথম দু’বছর প্রায় মুখবুজেই সবকিছু সহ্য করেছিলেন দু’জনে। সতীশ ভেবেছিলেন, ‘বাবা’র পরামর্শেই হয়তো গর্ভধারণ করবেন স্ত্রী। কিন্তু, তা হয়নি। এরপর একদিন ওই ভণ্ডবাবা সতীশের স্ত্রীর সঙ্গে অশ্লীল আচরণ করেন। তা মানতে পারেননি সতীশ। সোজা অভিযোগ দায়ের করেন পুলিশের কাছে। সব ঘটনা শুনে চমকে ওঠেন পুলিশকর্মীরাও।

গোটা ঘটনা এবার খুলে বলা যাক। ভণ্ডবাবার নির্দেশ ছিল, সতীশদের তার সামনেই যৌনসংগমে লিপ্ত হতে হবে। এতে নাকি সতীশের স্ত্রীর সব সমস্যা মিটে যাবে। তিনি গর্ভধারণও করতে পারবেন। এভাবেই চলছিল প্রায় দু’বছর। যোগেশের সামনেই যৌনসংগমে লিপ্ত হতে হত দু’জনকে। স্ত্রীর বারণ সত্ত্বেও সন্তান আশায় যোগীবাবার কথা মেনে নিতেন সতীশ। এরপর একদিন তাঁর স্ত্রীর সঙ্গে অশ্লীল আচরণ করে যোগেশ। এই ঘটনার পর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন সতীশ।

নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে ভণ্ডবাবাকে গ্রেপ্তার করেছে ভারতের থানের ভর্তকনগর থানার পুলিশ। আপাতত তার ঠাঁই হয়েছে পুলিশ হেফাজতে।

এদিকে, গোটা ঘটনায় শোকাহত সতীশের স্ত্রী আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন কিছুদিন আগে। মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে আপাতত তিনি সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

(Visited 1 times, 3 visits today)

Comments

comments