দেখুন ভেড়া চড়ানো মেয়েটি এখন ফ্রান্সের শিক্ষামন্ত্রী

১৯৭৭ সালে মরক্কোয় রক্ষণশীল গরিব মুসলিম পরিবারে জন্ম তার। বাবা নির্মাণশ্রমিক। কোনো মতে টেনেচুনে সংসার চলে। ছোট্ট মেয়েটি মাঠে মাঠে ভেড়া চড়িয়ে বেড়ায়। আর আজ সেই মেয়েটিই ফ্রান্সের শিক্ষামন্ত্রী। তিনি নাজাত বেল কাশেম।

মেয়েকে পড়াশোনা করানো সামর্থ্য ছিল না বাবার। ওইটুকু মেয়ের জেদ সে পড়াশোনা করবেই। সারাদিন মাঠে ভেড়া চড়িয়ে, মায়ের সঙ্গে দুধ বিক্রি করে সন্ধেবেলায় বাড়ি ফেরা। তার পরই পড়তে বসা।

বেশি টাকা উপার্জনের জন্য নাজাতের বাবা চলে যান ফ্রান্সে। পরে পরিবারকেও সেখানে নিয়ে যান। সেখানে গিয়েও পড়াশোনা থামেনি নাজাতের।

২০০২ সালে প্যারিস ইনস্টিটিউট অব পলিটিক্যাল স্টাডিজ থেকে স্নাতক হোন নাজাত। ছাত্রাবস্থাতেই সমাজতান্ত্রিক দলে (সোশ্যালিস্ট পার্টি) যোগ দেন। রাজনীতিই তার জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেয়।

তার মতো গরিব পরিবারগুলোর জন্য লড়াই শুরু করেন নাজাত। ধীরে ধীরে ফ্রান্সের রাজনীতির অন্যতম পরিচিত মুখ হয়ে ওঠেন। লড়াই করেছেন জাতিভেদের (রেসিজম) বিরুদ্ধেও।

২০০৮ সালে রোন আল্পাইন থেকে কাউন্সিল মেম্বার নির্বাচিত হোন নাজাত। এরপর থেকে আর হারেননি। ২০১২ সালে নারী অধিকার মন্ত্রীর দায়িত্ব পান। ফরাসি প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওঁলাদের মুখপাত্রও নিযুক্ত হন।

কাজ এবং দক্ষতার জন্য ২০১৫ সালের নাজাতকে ফ্রান্সের শিক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয়।

(Visited 1 times, 1 visits today)

Comments

comments